185021

‘৭ বছর ধরে শিকার হয়েছি, অচেতন করে আমাকে বিছানায় নিত’

হলিউডের নামজাদা অভিনেত্রীরা একের পর এক শারীরিক নির্যাতনের হয়রানির অভিযোগ তুলছেন প্রযোজক-নির্মাতাদের বিরুদ্ধে। কিন্তু স্বর্ণজয়ী মার্কিন জিমন্যাস্ট ম্যাকাইলা মারুনি জানিয়েছেন, এটা শুধু শোবিজ জগতেই নয়, সর্বত্রই ঘটছে। তিনি নিজেও এমন অভিজ্ঞতার শিকার হয়েছেন।

‘মি টু'(আমিও) হ্যাসট্যাগ দিয়ে জনপ্রিয় ক্যাম্পেইন চলছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। তারই অংশ হিসেবে মারুনি টুইটারে জানান, ক্ষমতাবান মানুষেরা সুযোগের অপব্যবহার করে নারীদের শারীরিক নির্যাতনের হয়রানি করে আসছে। এ নিয়ে এসব ব্যক্তিদের জবাবদিহিতার মুখোমুখি করারও অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি এসব ঘটনার শিকার নারীদেরও সরব হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

টুইটারে বুধবার একটি দীর্ঘ বিবৃতি দেন মারুনি। তিনি আমেরিকার হয়ে জিমন্যাস্টিকসে দলগত ইভেন্টে সোনা ও এককভাবে রুপা পদক জিতেছেন। তার বয়স এখন ২১। বিবৃতিতে মারুনি বলেন, ‘সাত বছর ধরে আমি টিমের ডাক্তার ল্যারি নাসার দ্বারা যৌন হয়রানির শিকার হয়েছি, অচেতন করে আমাকে বিছানায় নিত।”

১৩ বছর বয়সেই আমার এ তিক্ত অভিজ্ঞতা হয়েছে। আমি দেশের হয়ে অলিম্পিকে যাওয়ার স্বপ্ন দেখতাম। কিন্তু সে স্বপ্ন পূরণের মূল্য আমাকে মর্মান্তিকভাবেই দিতে হয়েছে। যখনই ওই চিকিৎসক সুযোগ পেয়েছেন আমার সঙ্গে এমন আচরণ করেছেন। টোকিওতে যাওয়ার পথে তিনি আমাকে ঘুমের ওষুধ খাইয়েছিলেন। আমাকে অচেতন করে হোটেলে আমার সঙ্গে রাতযাপন করেছেন। তখন আমার বয়স ছিল ১৫। সেটাই ছিল আমার জীবনের সবচেয়ে ভয়ঙ্করতম রাত। মনে হচ্ছিল সেই রাতেই আমি মারা যাব।’

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *